মঙ্গলবার দুপুরে মালদা মেডিকেল কলেজের  প্রশাসনিক ভবন চত্বরে জেলা দমকল কর্মীদের পক্ষ থেকে একটি ফায়ার মকড্রিল করা হয় ।

0
358

নিজস্ব সংবাদদাতা, মালদা:- মালদা মেডিকেল কলেজের অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা নিয়ে ডিলিট করলো জেলার বিভাগীয় দমকল বিভাগ আর তাতেই মেডিকেল কলেজের অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থার কিছু ক্ষেত্রে সমস্যা দেখা দিতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে জেলা দমকল বিভাগের কর্তারা মঙ্গলবার দুপুরের মালদা মেডিকেল কলেজ সংলগ্ন চত্বরে সংশ্লিষ্ট  কর্মীদের নিয়ে একটি মকডিল করা হয়।

উল্লেখ্য, মালদা মেডিকেল কলেজ ভবন চত্বরে রয়েছে বহির্বিভাগের বহুতল, প্রশাসনিক ও কলেজের ভবন ৮ তলা বিশিষ্ট নবনির্মিত কেয়ার ইউনিট ও ভবন,  মেডিকেল কলেজের পড়ুয়া ও চিকিৎসক নার্স থেকে শুরু করে স্বাস্থ্যকর্মীদের বহুতল আবাসন গুলিও রয়েছে। সে ক্ষেত্রে বড় ধরনের অগ্নিসংযোগের কোন ঘটনা ঘটলে অগ্নি নির্বাপন করতে সমস্যায় পড়তে হতে পারে দমকল কর্মীদের এমন আশঙ্কা করছেন তাঁরা।

মঙ্গলবার দুপুরে মালদা মেডিকেল কলেজের  প্রশাসনিক ভবন চত্বরে জেলা দমকল কর্মীদের পক্ষ থেকে একটি ফায়ার মকড্রিল করা হয় । যে কোন সময় অগ্নি সংযোগের ঘটনা ঘটলে কিভাবে আগুনকে নিয়ন্ত্রণে আনা যাবে সেই বিষয়ে হাসপাতাল কর্মীদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়।  ইংরেজবাজার ফায়ার স্টেশনের সাব-ইন্সপেক্টর ধরণী কান্ত পাল জানিয়েছেন, মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কর্মীদের নিয়ে একটি ফায়ার মকড্রিল  করা হয়েছে । আগুন নেভাতে গেলে কি কি নিয়ম রয়েছে, সে বিষয়ে তাদেরকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। এখানে বড় ধরনের অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটলে আগুন নির্বাপন করতে গেলে একটি সমস্যা দেখা দিতে পারে । কারণ এখানে ডিজেল চালিত পামসেট নেই । যে কটা পামসেট রয়েছে সেটা ইলেকট্রিকের দাঁড়ায় চলে । ফলে অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটলে লোডশেডিং হয়ে গেলে তাহলে পর্যাপ্ত পরিমাণ আগুন নেভানোর জন্য জল ব্যবহার করতে পাওয়া যাবে না।  এই সমস্যার বিষয় নিয়ে আমরা মালদা মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

মালদা মেডিকেল কলেজের ভাইস প্রিন্সিপাল ডা: পুরঞ্জয় সাহা জানিয়েছেন, অগ্নিনির্বাপণ করার ক্ষেত্রে আমাদের মেডিকেল কলেজে যথেষ্ট পরিকাঠামো রয়েছে।  ইলেকট্রিকের পাশাপাশি ডিজেলের ও  পামসেট রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here