দলীয় পতাকা ছেঁড়ার প্রতিবাদ করার লোহার রড দিয়ে হামলা, বাড়ি লক্ষ্য করে ইট বৃষ্টি, ধারালো অস্ত্র নিয়ে বাড়ি এবং দোকান ভাঙচুর।

0
365

নদীয়া, নিজস্ব সংবাদদাতা:- দলীয় পতাকা ছেঁড়ার প্রতিবাদ করার লোহার রড দিয়ে হামলা, বাড়ি লক্ষ্য করে ইট বৃষ্টি, ধারালো অস্ত্র নিয়ে বাড়ি এবং দোকান ভাঙচুর। প্রশাসনের দ্বারস্থ হলেন প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি। অভিযোগের তীর তৃনমূলের আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে।ঘটনাটি ঘটেছে নদীয়ার শান্তিপুর থানার মৌচাক কলোনি। চরম আতঙ্কে ভুগছে ওই পরিবার। জানা যায়, গতকাল রাতে বেশ কয়েকজন যুবক বিজেপির একাধিক দলীয় পতাকা ছিঁড়ে নিজেদের পতাকা লাগাচ্ছিল। ঠিক তখনই মৌচাক কলোনি এলাকায় এক ব্যক্তি প্রশ্ন করেন কেন অন্যদের দলীয় পতাকা ছেরা হচ্ছে। অভিযোগ এরপর এই আচমকা একটি লোহার রড দিয়ে ওই ব্যক্তির মাথায় আঘাত করে। পরে আরও বেশ কয়েকজন হেসে অভিব্যক্তির বাড়ি লক্ষ্য করে ইট ছোড়ে। অস্ত্র দিয়ে তার দরকার এবং বাড়িতে হামলা করা হয়। বাড়ির টালি ভেঙে দেওয়া হয়। প্রশাসনের দ্বারস্থ হলেন সকলকে প্রানে মেরে দেওয়ার হুমকি দেয় দুষ্কৃতীরা। অভিযোগ ওঠে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। ওই এলাকায় বিজেপি প্রার্থী সূর্য প্রামানিক বলে, দীর্ঘদিন ধরে ওই এলাকায় সন্ত্রাসের বাতাবরণ সৃষ্টি করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। পুরোপুরি পুলিশকে সামনে রেখে তারা সন্ত্রাস চালাচ্ছে। প্রশাসনকে জানিয়েও কোনো লাভ হয়না। আমরা এই সন্ত্রাস আর বেশিদিন চলতে দেবোনা এই এলাকায়। প্রশাসন কোনো ব্যবস্থা না নিলে উচ্চতর নেতৃত্ব সঙ্গে কথা বলে প্রয়োজনে বিক্ষোভ-অবরোধ নামব আমরা। যদিও পুরো ঘটনাটি অস্বীকার করেছে ওই এলাকার তৃণমূল প্রার্থী। তিনি বলেন এ ঘটনার সাথে তৃণমূল কখনোই যুক্ত থাকতে পারে না। আমরা মমতা ব্যানার্জির দল করি উন্নয়নে শামিল হয়ে সন্ত্রাসী নয়। যদিও অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত করার আশ্বাস দিয়েছে শান্তিপুর থানার পুলিশ।