রাজ্য জুড়ে বিজেপির ডাকা ১২ ঘন্টার বনধ সফল করতে বালুরঘাটের রাস্তায় নামল বিজেপির নেতৃত্ব – কর্মীরা।

0
382

দক্ষিণ দিনাজপুর, নিজস্ব সংবাদদাতা:- রাজ্য জুড়ে বিজেপির ডাকা ১২ ঘন্টার বনধ সফল করতে বালুরঘাটের রাস্তায় নামল বিজেপির নেতৃত্ব – কর্মীরা। সোমবার সকাল হতেই বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার-এর নেতৃত্বে বালুরঘাটের বিজেপি নেতা-কর্মীরা পথে নামে। এদিন প্রথমে বিজেপির কর্মী সমর্থকরা নারায়ণপুর এলাকার পাবলিক বাসস্ট্যান্ড এলাকায় পিকেটিং শুরু করে তারপর উত্তরবঙ্গ রাস্ট্রীয় পরিবহন সংস্থার বাস ডিপোতে বনধ-এর সমর্থনে পিকেটিং শুরু করে। এরপর সরকারি বাস চলাচলে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা বাধা দিলে পুলিশের সাথে বচসা শুরু হয় বিজেপির নেতা-কর্মীদের। পুলিশ কার্যত চ্যাংতোলা করে বিজেপি বিধায়ক বুধরাই টুডু-কে উঠিয়ে নিয়ে যায়। বিজেপি বিধায়ক বুধরাই টুডু বলেন জনগণের সমর্থন রয়েছে আমাদের, শুধু পুলিশ প্রতিবাদ করছে, পুলিশ দলদাসে পরিণত হয়েছে। অপরদিকে বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার-এর নেতৃত্বে বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা বালুরঘাটের রঘুনাথপুর এলাকায় বনধ-এর সমর্থনে রাস্তায় নামলে এবং পুলিশ তাদের বাধা দিলে পুলিশের সাথে বিজেপি নেতা-কর্মীদের ধস্তাধস্তি শুরু হয়। পুলিশের বিরুদ্ধে বিজেপির রাজ্য সভাপতিকে ধাক্কাধাক্কি করারও অভিযোগ উঠে। যার পরে বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার সংবাদমাধ্যের সামনে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন বালুরঘাট থানার আই.সি তৃণমূলের কর্মীর ন্যায় আচরণ করছেন, উনি গ্রেপ্তার করতে পারেন আইন ভঙ্গের জন্য, কিন্তু উনি কাউকে মারতে পারেন না, আমাকে ধাক্কা দিচ্ছেন, আমাদের প্রার্থীকে হুমকি দিচ্ছেন, এই ধরনের কথা বার্তা বালুরঘাটে চলে না, উনি হয়ত কোন জঙ্গল থেকে উঠে এসেছেন, এটি সংস্কৃতির শহর। রঘুনাথপুরে বনধ-এর সমর্থনে পিকেটিং-এ পুলিশের কাছ থেকে বাধা পাওয়ার পর জেলা শাসকের দপ্তরের সামনে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করে বিজেপি নেতৃত্ব থেকে শুরু করে কর্মীরা। জেলা শাসকের দপ্তরে প্রবেশের পূর্বে বিজেপির এই বিক্ষোভের জেরে ফের তৎপরতা দেখা গেছে পুলিশ মহলে। বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার বলেন যতক্ষণ পর্যন্ত না আমাদের শক্তি শেষ হচ্ছে ততক্ষণ পর্যন্ত আমরা প্রতিরোধ করব। তিনি বলেন গণতান্ত্রিক অধিকার যদি না থাকে তাহলে একটা একটা করে সব অধিকার কেড়ে নেবে সরকার, গণতান্ত্রিক অধিকারকে রক্ষা করা একান্ত প্রয়োজন, ভোটের নামে যা যা হয়েছে এটা মেনে নেওয়া যায় না। পাশাপাশি বুধরাই টুডু-কে চ্যাংতোলা করে পুলিশের উঠিয়ে নিয়ে যাওয়া প্রসঙ্গে সুকান্ত মজুমদার বলেন
এটা শুধু বিধায়ককে অসম্মান নয়, বুধরাই টুডু তপশিলি উপজাতি সমাজের প্রতিনিধি, সুতরাং এটি এস.টি-আদিবাসী সমাজের অপমান, আগামীদিনে এর প্রতিদান তৃণমূল কংগ্রেসকে ভুগতে হবে। এমনকি রাজ্যে বিজেপির ডাকা ১২ ঘন্টার বনধ্-এর কারনে সাধারণ মানুষদের অসুবিধার জন্য ক্ষমাও চান এদিন বিজেপির রাজ্য সভাপতি।
বিজেপির দলীয় সূত্রে খবর সোমবার বনধ-এর সমর্থনে পিকেটিং করার কারনে দক্ষিণ দিনাজপুরের কুশমন্ডি থেকে ৫ জন বিজেপি কর্মী গ্রেপ্তার হয়েছে। বিজেপির ডাকা বনধ প্রসঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভাপতি উজ্বল বসাক তোপ দেগে বলেন দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার মানুষ প্রত্যাখ্যান করেছে বিজেপিকে, বিজেপি বুঝতে পেরেছে দুটি পৌরসভা নির্বাচনেও তাদের অস্তিত্ব বিলোপ হয়ে গেছে, মানুষ থেকে যেহেতু তারা বিচ্ছিন্ন তারা মানুষকে বিভ্রান্ত করবার জন্য দিন আনা দিন খাওয়া মানুষকে বিপদে ফেলবার জন্য এরা বনধ ডেকেছে। শুধু তাই নয় বিজেপির ডাকা বনধ্-এ বালুরঘাটে কোন প্রভাব পড়েনি বলেও তিনি দাবী করেন।