দল বিরোধী কাজ কর্ম করায় দলেরই এক কর্মীকে হেনস্থা করার অভিযোগ উঠল বিধায়কের অনুগামীদের বিরুদ্ধে,চাঞ্চল্য খড়গপুরে।

0
262

নিজস্ব সংবাদদাতা,পশ্চিম মেদিনীপুর:- একদিন আগেই ঘোষণা হয়েছে পৌরসভা নির্বাচনের ফলাফল। পৌরভোটে খড়গপুর পৌরসভার ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের বিজেপি প্রার্থী বিধায়ক হিরন্ময় চট্টোপাধ্যায় জয়ী হয়েছেন।প্রধান বিরোধী প্রার্থী তৃণমূলের জহর পালকে হারিয়ে বিপুল ভোটে জয় যুক্ত হয়েছেন তিনি। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ৩৪ নম্বর ওয়ার্ডের তালবাগিচা এলাকায় দলীয় বৈঠকে যোগ দিতে বিজেপির দলীয় কার্যালয়ে উপস্থিত হন হিরণ।সেই সময় দলীয় কার্যালয়ে উপস্থিত বিজেপি কর্মীদের সামনেই স্থানীয় এক দাপুটে বিজেপি নেতা চঞ্চল কর – কে হেনস্থা করার অভিযোগ উঠল খড়্গপুরের বিধায়ক তথা ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের বিজেপি প্রার্থী হিরণময় চট্টোপাধ্যায়ের অনুগামীদের বিরুদ্ধে। অভিযোগ, হিরনের নির্দেশেই তার কিছু লোকজন মারধর করে দলীয় কার্যালয় থেকে বের করে দেয় চঞ্চল কর’কে। এমনকি কেড়ে নেওয়া হয় চঞ্চল কর নামে ওই বিজেপি কর্মীর মোবাইল ফোনটিও। দলীয় কার্যালয় থেকে চঞ্চলকে বের করিয়ে দিয়ে তাকে ছাড়াই সেখানে কর্মী বৈঠক করেন সদ্য নির্বাচিত কাউন্সিলর হিরণময় চট্টোপাধ্যায়।
প্রসঙ্গত, গত বছরের ১৫ ই আগস্ট চঞ্চলের উদ্যোগেই ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডে তৈরি হয় বিজেপির ওই দলীয় কার্যালয়টি। ঘটনা ঘটার মুহূর্তের মধ্যেই ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয় এলাকায়। ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় খড়্গপুর লোকাল থানার পুলিশ।হিরনের পাল্টা অভিযোগ, ‘পৌরসভা নির্বাচনের আগের থেকেই স্থানীয় ভোটারদের প্রভাবিত করছিলেন চঞ্চল কর’। ‘বাড়ি বাড়ি গিয়ে বিজেপিকে ভোট না দেওয়ার অনুরোধ করেন তিনি’। তবে সেই কারণেই কি ব্যক্তিগত রাগ দেখিয়ে দলীয় কর্মীকে এভাবে হেনস্থা করলেন বিজেপির প্রথম সারির এই দাপুটে নেতা? প্রশ্ন রাজনৈতিক মহলের।