‘ সুস্থ মন ও সুস্থ সমাজ’ এই স্লোগানকে হাতিয়ার করে মানসিক রোগ নিয়ে সচেতনতা মূলক প্রচার অনুষ্ঠিত হলো।

0
288

নিজস্ব সংবাদদাতা, মালদাঃ- ‘ সুস্থ মন ও সুস্থ সমাজ’ এই স্লোগানকে হাতিয়ার করে মানসিক রোগ নিয়ে সচেতনতা মূলক প্রচার অনুষ্ঠিত হলো। সোমবার আইহো এলাকায় বক্তব্যের মাধ্যমে এবং পুতুল ও মুখোশ শিল্পীদের অভিনয়ে পথ নাটিকার মাধ্যমে এই সচেতনতা মূলক প্রচার চালানো হয়। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দপ্তরের উদ্যোগে এবং মালদা জেলা সিএমওএইচ এর সহযোগিতায় এই সচেতনতা মূলক প্রচার বলে জানা গিয়েছে। উপস্থিত ছিলেন প্রচারক দিলীপ দাস সহ প্রচার সংশ্লিষ্ট বিষয় সম্পর্কিত পথনাটিকা শিল্পীবৃন্দ।
এদিন মূলত মানসিক রোগের বিভিন্ন উপসর্গ ও তার প্রতিবিধান নিয়ে সচেতনতা মূলক প্রচার তুলে ধরা হয়। সুস্থ মনই সুস্থ সমাজ গঠনের সহায়ক এই তথ্যের উপর ভিত্তি করে পুতুল ও মুখোশ শিল্পীরা মানুষজনকে সচেতন করতে অভিনয়ের মাধ্যমে সমস্যা ও তার সমাধান তুলে ধরেন।
বাস্তবিকই সমাজে প্রায়ই দেখা যায় মানসিক সমস্যা নিয়ে জর্জরিত মানুষজনকে কখনো কখনো উপহাসের শিকার হতে হয়। সেই উপহাস অল্প মানসিক অসুস্থতা সম্পন্ন মানুষকে আরও গভীর মানসিক অসুস্থতার দিকে ঠেলে দেয়। যার ফল হয় মারাত্মক। অথচ একটু সহানুভূতি ও ভালো আচরন আর সামান্য চিকিৎসা পেলে হয়তো সেই ব্যক্তি পুরোপুরি সুস্থ হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারতেন। কিন্তু সেই প্রত্যাশিত সহানুভূতিশীল আচরন বা উপযুক্ত চিকিৎসার অভাবে রোগীর অকাল মৃত্যু পর্যন্ত ঘটছে।
তাই এদিন সচেতনতা মূলক প্রচারে সেই সমস্যা ও তার সমাধানের জন্য বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হয়। কোনো ব্যক্তির মানসিক অসুস্থতা দেখা দিলে তাঁকে নিয়ে বিরক্তিকর উপহাস না করে এবং কুসংস্কারের বশবর্তী না হয়ে সহানুভূতিশীল আচরন করতে হবে। তাঁর সমস্ত কথা মন দিয়ে শুনতে হবে। তাঁর মনোরঞ্জনে সঙ্গীতানুষ্ঠান, নৃত্যানুষ্ঠান,আবৃত্তি, অঙ্কন সহ বিভিন্ন বিনোদন মূলক বিষয়ে ব্যস্ত রাখতে হবে। প্রয়োজনে সরকারি টোল ফ্রি নম্বরে যোগাযোগ করতে হবে। পরামর্শ মতো বিভিন্ন উপসর্গ যুক্ত রোগীর সমস্যা দূরীকরণে সরকারি হাসপাতালে যোগাযোগ করতে হবে। এভাবেই প্রচারে জমায়েত মানুষজনের সামনে সচেতনতা মূলক বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here