তুফানগঞ্জে স্বামীকে খুন করে ঝুলিয়ে দেওয়ার অভিযোগে স্ত্রীর বিরুদ্ধে, গ্রেপ্তার মা ও বড় ছেলে

0
258

মনিরুল হক, কোচবিহারঃ পারিবারিক বিবাদের জেরে স্বামীকে খুন করে ঝুলিয়ে দেওয়ার অভিযোগ স্ত্রীর বিরুদ্ধে। ওই ঘটনায় বড় ছেলে যুক্ত ছিল বলে অভিযোগ। ঘটনাটি ঘটেছে তুফানগঞ্জ ১ নং ব্লকের বলরামপুর সর্পসিংরায় গ্রামে। ওই ঘটনা ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। মৃত ওই ব্যক্তির নাম সুখরঞ্জন দেবনাথ (৪৪)। পরে স্থানীয়রা মা ও ছেলেকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়।
জানা যায়, গতকাল রাতে স্বামী ও স্ত্রীর মধ্যে বিবাদ লাগে। সেই আওয়াজ স্থানীয় লোকজন শুনতে পায়। অভিযোগ, স্বামী স্ত্রীর বিবাদের পর স্ত্রী রিনা দেবনাথ ও তার বড় ছেলে আশিস দেবনাথ ওই ব্যক্তিকে মেরে একটি গাছের মধ্যে ঝুলিয়ে রাখা হয়। আজ সকালে স্থানীয় লোকজন দেখতে পায় একটি গাছে সুখরঞ্জন বাবু ঝুলে রয়েছে। পরে স্থানীয় লোকজন তুফান গঞ্জ থানার পুলিশকে খবর দেয়। ওই খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠান হয়। স্থানীয়রা পরে মা ও ছেলেকে পুলিশের হাতে তুলে দেয় বলে জানা গিয়েছে।
মৃত ব্যক্তির ভাগ্নে অরুপ দেবনাথ জানান, আমাকে টেলিফোন মারফত খবর দেওয়া হয় যে মামা মারা গিয়েছে। খবর পেয়ে আমি মামা বাড়ি ছুটে আসি এসে দেখি মামা বাড়ির সামনে একটি গাছের মধ্যে তার ঝুলন্ত দেহ ঝুলছে। পরে খবর দেওয়া হয় তুফানগঞ্জ থানার পুলিশকে। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নিয়ে যায়।
পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ওই ঘটনার জেরে মা ও বড় ছেলেকে গ্রেপ্তার করা হয়। সুখরঞ্জন বাবুর ছোট্ট ছেলে রয়েছে তার বয়স কম থাকায় তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয় নি।ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে তুফানগঞ্জ থানার পুলিশ।
এবিষয়ে তুফানগঞ্জ মহকুমা পুলিশ আধিকারিক জে জিম্বা বলেন, সম্পূর্ণ ময়নাতদন্ত না হলে এটি আত্মহত্যা না খুন তা বলা সম্ভব নয়। আমরা দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছি। তার স্ত্রী এবং ছেলেকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।