প্রায় 30 বছর আগে পিতৃহারা 100% প্রতিবন্ধী রিনা বাগদির এখনো হয়নি প্রতিবন্ধী কার্ড ও আধার কার্ড, বঞ্চিত অনেক সুবিধা থেকেই।

0
162

বাঁকুড়া, নিজস্ব সংবাদদাতা:-  প্রায় 30 বছর আগে পিতৃহারা 100% প্রতিবন্ধী রিনা বাগদির এখনো হয়নি প্রতিবন্ধী কার্ড ও আধার কার্ড, বঞ্চিত অনেক সুবিধা থেকেই। বাঁকুড়া জেলার ইন্দাস ব্লকের ঠাকুরানি পুষ্করিণী বাসিন্দা ধীরু বাগদি 100% প্রতিবন্ধী মেয়ে রিনা বাগদির বর্তমান বয়স প্রায় 33 বছর। রিনা বাগদির জন্মের প্রায় 3 বছরের মধ্যেই ধীরু বাগদী তার স্বামীকে হারায় তারপর থেকে প্রতিবন্ধী মেয়েকে নিয়ে চলে তার সংগ্রাম।
লোকের বাড়িতে কাজ করে কোনমতে অভাবি ঘরে দু’মুঠো অন্ন জোটে। এক চিলতে ছোট ঘরে দুঃখী মা মেয়ে ও এক ছেলের বাস।
রিনা বাগদির বয়স প্রায় 33 বছর হলো এখনও পর্যন্ত হয়নি আধার কার্ড।
রেশনে যেটুকু রেশন সামগ্রী সেটাও বন্ধ হয়ে যাবে বলে জানিয়ে দিয়েছে ডিলার এই অবস্থায় আধার কার্ড কিভাবে করাবে বুঝে উঠতে পারছেনা ধীরু বাগদি।
শুধু তাই নয় এত গুলো বছর কেটে গেলেও করাতে পারেনি প্রতিবন্ধি কার্ডও ফলতো বঞ্চিত প্রতিবন্ধীদের জন্য নির্দিষ্ট থাকা সুযোগ-সুবিধা থেকেও।

100% প্রতিবন্ধী মেয়েকে নিয়ে কিভাবেই বা যাবে আধার কার্ড এবং প্রতিবন্ধী কার্ড করাতে। প্রতিবন্ধী মেয়েকে নিয়ে ফাঁকে যেতে হলে চাই তো গাড়ি আর তার জন্য চাই টাকা, কিন্তু টাকা কোথায় টাকা আর কেই বা দেব, অতএব হয়নি আধার কার্ড ও জরুরী প্রতিবন্ধী কার্ড , এ ব্যাপারে প্রশাসন উদাসীন নয়তো অনেক আগেই হওয়ার কথা প্রতিবন্ধী কার্ড ও আধার কার্ড।
সময়তো গেছে বহু ।এখনো যাতে হয় সে ব্যাপারে যদি প্রশাসন এগিয়ে আসেন তাহলে অসহায় পরিবারের প্রতিবন্ধী মেয়েটি উপকৃত হবে।

বাঁকুড়া থেকে আবদুল হাইয়ের বিশেষ প্রতিবেদন