শক্তপোক্ত কংক্রীটের বাঁধ চাই,না হলে আবারও ভেসে যেতে হবে।

0
420

গোসাবা, নিজস্ব সংবাদদাতা: – পূর্ণিমার ভরাকোটালে গোসাবার মোল্লাখালির ক্ষতিগ্রস্ত নদীবাঁধ পরিদর্শন করলেন গোসাবা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি অচিন পাইক। রবিবার এলাকা পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের কথা শুনলেন এবং তাদের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন।
উল্লেখ্য শনিবার পূর্ণিমার ভরা কোটালে নদী বাঁধ ভেঙে নোনা জলে প্লাবিত হয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে গোসবা ব্লকের মোল্লাখালি কালিদাসপুর গ্রাম। জলের তোড়ে এলাকার ঘরবাড়ি সব কিছু ভেঙে ভাসিয়ে নিয়ে গিয়েছে নদীর লবনাক্ত জল। ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় গ্রামবাসীরা আশ্রয় নিয়েছে পার্শ্ববর্তী স্কুলে। অনেককে আশ্রয় নিতে দেখা গিয়েছে ভাসমান নৌকায়। অবশ্য ইতিমধ্যে ব্লক প্রশাসনের তৎপরতায় নদীবাঁধ মেরামতের কাজ চলছে এবং নদীর জল আটকানো সম্ভব হয়েছে। এলাকায় নোনা জল জমে থাকার কারণে ইতিমধ্যে পচা দুর্গন্ধ বের হতে শুরু করেছে। ব্লক প্রশাসন আশঙ্কা করছে এ কারণে মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়তে পারে। আর সেই কারণে প্রশাসনের তরফে ইতিমধ্যে মেডিকেল টিম সেখানে পৌঁছে গিয়েছে। ঘটনাস্থলে ইতিমধ্যে খোলা হয়েছে কমিউনিটি কিচেন সেন্টার যেখান থেকে প্রতিদিন ৮০০ মানুষের খাওয়ার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। ঘটনাস্থলে পৌঁছে সমিতির সভাপতি অচিন পাইক তিনি গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানকে মানুষের পাশে থাকার জন্য নির্দেশ দেন।
অন্যদিকে এলাকার মানুষ দাবি তুলেছেন শক্তপোক্ত কংক্রিটের নদী বাঁধের।না হলে আবারও ভেসে যেতে হবে। ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here