স্বর্ণদীপ চ্যারিটেবল ট্রাস্ট সংস্থার উদ্যোগে শুরু হল ১টাকার পাঠশালা।

0
5455

দঃ ২৪পরগনা, নিজস্ব সংবাদদাতাঃ- সম্প্রতি ক্যানিং মহকুমা,তালদি এলাকায় সমাজসেবী সংগঠন স্বর্ণদীপ চ্যারিটেবল ট্রাস্ট ও একতা সংঘ-এর যৌথ উদ্যোগে শুরু হল ১টাকার পাঠশালা।যেখানে প্রতিটি ছাত্র ছাত্রী কে মাসিক বেতন বাবদ ১ টাকা করে দিতে হবে।শিশু১ থেকে দশম শ্রেণী পর্যন্ত পঠনপাঠন দেওয়া হবে।প্রতিটি শিশুর জন্য আলাদা আলাদা বই,খাতা,পেনসিল ব্যাগ এমন কি স্কুলের পোশাকও দেওয়া হবে ১টাকার পাঠশালার তরফ থেকে।বর্তমানে তালদি এলাকায় ১ টাকার পাঠশালা ২২ জন ছাত্র ছাত্রী নিয়ে পথচলা শুরু করেছে রবিরার থেকে।ছুটির দিন বাদে প্রতিদিন বিকাল ৪টে থেকে ৬টা পর্যন্ত ১ টাকার পাঠশালায় পড়াশোনার কাজ চলবে।প্রতিদিনই দায়িত্বে থাকবেন ৩ জন শিক্ষক শিক্ষিকা।


উল্লেখ্য বর্তমানে যখন ডিজিটাল ভারত,ডিজিটাল বাংলায় পাকা স্কুলে এবং অনলাইনে পঠন-পাঠনে ব্যস্ত, ঠিক সেই মুহূর্তে প্রত্যন্ত প্রান্তিক গ্রামের শিশুরা খেলায় মত্ত।তাদের পরিবারের আর্থিক অনটনের জন্য একবেলা পেটের খাবার জোগাড় করা দায়।সেখানে স্কুলে ভর্তি কিংবা পড়াশোনা ব্যাপারটা নিছক বাহুলতা।স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা স্বর্ণদীপ চ্যারিটেবল ট্রাস্ট বিগত দিনে সুন্দরবনের বিভিন্ন প্রান্তে সমাজসেবামূলক কাজ করেছে।সেই সুত্রে,বেশকিছু অসহায় অশিক্ষিত মানুষজন তাদের কাছে আবেদন করেছিলেন,এলাকায় যদি শিশুদের বিনাব্যয়ে পড়াশোনার ব্যবস্থা করা হয় তবে ভালো হবে।
প্রান্তিক গ্রামের অশিক্ষিত মানুষের কাছে এমন অভিনব উপদেশ পেয়ে পরিকল্পনা শুরু করে স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার তিন সদস্য শ্রীকান্ত বধুক,ঝর্ণা মন্ডল ও সুদীপ মন্ডল’রা।মাঘী পূর্ণিমার পূণ্যলগ্নে ক্যানিংয়ের তালদি এলাকায় শুরু হয় স্বপ্নের ১টাকার পাঠাশালা।
ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা এমন উদ্যোগ গ্রহণ করায় এলাকার মানুষজন প্রশংসা করেছেন।
অন্যদিকে স্বর্ণদ্বীপ চ্যারিটেবল ট্রাস্ট এর অন্যতম সদস্য শ্রীকান্ত বধুক জানিয়েছেন, ‘শিশুরা আমাদের আগামী দিনের ভবিষ্যৎ।তারা যদি নিরক্ষর থাকে আমাদের তথা দেশের ক্ষতি। যারফলে অসহায়,দরিদ্র পরিবারের শিশুরা যাতে করে শিক্ষিত হয়ে উঠতে পারে তার উদ্যোগ গ্রহণ করেছি।আগামী দিনে সুন্দরবনের প্রত্যন্ত প্রান্তিক এলাকায় আরো ১টাকার পাঠশালা তৈরি করা হবে শিশুদের কথা মাথায় রেখে। ’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here