৬০ টাকায় লটারির টিকিট কেটে রাতারাতি কোটিপতি গীতালদহের এক ভ্যানচালক।

0
360

মনিরুল হক, কোচবিহার: একেই বলে ভাগ্য। মাত্র ৬০ টাকা দিয়ে লটারি টিকিট কেটে কোটিপতি হলেন সীমান্ত গ্রামের পেশায় ভ্যানচালক ফজলে মিয়া।

জানা যায়, শুক্রবার রাতে এলাকার একটি দোকান থেকে মাত্র ৬০ টাকা দিয়ে একটি লটারি টিকিট কাটেন। খেলা অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়ার পর ঠিক এদিন সন্ধ্যায় সে দোকানে গিয়ে টিকিট নম্বর মেলাতে গিয়ে দেখেন প্রথম পুরস্কারের টিকিট নম্বর এবং তার টিকিট নম্বর একই। তড়িঘড়ি পেশায় ভ্যানচালক ফজলে মিয়া সেখান থেকে সরাসরি বাড়িতে ফিরে যান। কারণ বর্তমানে তিনি কোটিপতি। খবর ছড়িয়ে পড়তেই এলাকার সাধারণ মানুষ তার বাড়িতে ভিড় জমাচ্ছেন। নিরাপত্তার অভাব বোধ করে প্রথমে গীতালদহ পুলিশ ফাড়িতে গিয়ে পুলিশ আধিকারিকদের গোটা বিষয়টি জানান। সেখান থেকে সরাসরি দিনহাটা থানায় নিরাপত্তার জন্য ছুটে আসেন।

জানা যায় সেই টিকিট তিনি থানায় জমা দিয়েছেন। গীতালদহ এক নং গ্রাম পঞ্চায়েতের ভোরাম গ্রামে তার বাড়ি। তার বয়স ৬৮ বছর হলেও ভ্যান চালিয়ে চলতো সংসার। দিনরাত এক করে পরিশ্রম করেও কোনো ভাবেই সংসারের অনটন মেটাতে পারতেন না তিনি। ভাগ্য পরীক্ষা করতে গিয়ে যে তিনি কোটিপতি হয়ে যাবেন তা কখনো কল্পনা করতে পারেননি।

ফজলে মিয়া জানান, লটারি টিকিট থেকে পাওয়া এক কোটি টাকা দিয়ে প্রথমে তার ভাঙ্গা বাড়ি কে নতুন করে তৈরি করার স্বপ্ন দেখছেন তিনি।

স্থানীয় বাসিন্দারা অনেকেই বলেন, অভাবের সংসারে ফজলে বাবু কোটিপতি হয়ে গেলেন। খবরটি শুনে সত্যিই ভালো লাগছে। ভ্যান চালিয়ে কোনভাবেই সংসার চলত না তাদের এমনটাই বলছেন স্থানীয়রা।